আজ- মঙ্গলবার, ২০শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা আগস্ট, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

  করোনাকালে মরুভূমিতে বসিয়ে রাখা হয়েছে অসংখ্য বিমান       সবুজ বাংলাদেশ সুবর্ণচর শাখার ঈদপূর্ণমিলন ও পরিচিত সভা এবং বৃক্ষরোপন কর্মসূচি       তিস্তায় বাঁধ নির্মাণের দাবিতে মানববন্ধন       রাজ্যে লকডাউন’র দিন বদল, নতুন তালিকা প্রকাশ করল নবান্ন       করোনাকালে দেশের রেমিট্যান্স ও রিজার্ভে রেকর্ড       নেপালে আবারও ভূমিধসে ১০ জন’র মৃত্যু       ইংল্যান্ড দল’র ব্যাটিং কোচ’র দায়িত্ব পেলেন ট্রট       শান্তিতে নোবেলজয়ী জন হিউম’র প্রয়াণ       ভ্রমণ পিয়াসীদের পদচারণায় ৫ মাস পরে মুখরিত হয়ে উঠেছে রাজশাহীর চিড়িয়াখানা ও পদ্মাপাড়       নবীগঞ্জে করোনায় মারা গেলেন চিত্তরঞ্জন দাশ       উজিরপুরে মসজিদ কমিটিকে কেন্দ্র করে যুবলীগ সম্পাদকসহ আহত ৫       বাগেরহাটে ইয়াবাসহ দু’বোনকে আটক করেছে গোয়েন্দা পুলিশ       রাজশাহীতে লুকু-কালুর জুয়ার আসরে পুলিশের অভিযান, কালুসহ-১২ জুয়াড়ী আটক       নাগেশ্বরীতে শহীদ সাফাত সড়কের নামফলক উন্মোচন        উজিরপুরে জুয়াড়ী রফিক গণধোলাইয়ের শিকার       আফগানিস্তান কারাগারে বন্দুকধারীদের হামলায় নিহত-২১, আহত-৪৩    

বাগেরহাটে গ্রাম আদালতের আইনগত কাঠামো পর্যালোচনা বিষয়ক সভা অনুষ্ঠিত

বাগেরহাট প্রতিনিধি: বাগেরহাটে গ্রাম আদালতের আইনগত কাঠামো পর্যালোচনা ও সংস্কার প্রস্তাবনা বিষয়ক পরামর্শ বিষায়ক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এসময় বাগেরহাটপুলিশ সুপার পংকজ চন্দ্র রায় বলেন, গ্রাম আদালত বর্তমান সরকার কর্তৃক গৃহীত একটি অত্যন্ত চমৎকার পদক্ষেপ। গ্রাম আদালত কার্যকর হলে পুলিশের উপর চাপ কমবে।

মানুষ অল্প সময়ে অল্প খরচে ন্যায় বিচার পাবে এবং কোর্ট কাচারীর মামলা জট কমবে। তবে গ্রাম আদালতের বিচারের ক্ষেত্রে জনগনের আস্থা সৃষ্টি করা অত্যন্ত জরুরী।

গতকাল সোমবার বাগেরহাট পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। বাগেরহাট পুলিশ সুপার পংকজ চন্দ্র রায় এর সভাপতিত্বে সভায়। সভায় গ্রাম আদালত প্রকল্পের উদ্দেশ্য, গ্রাম আদালতের অগ্রগতির ও বিভিন্ন সুপারিশ তুলে ধরে বক্তব্য দেন, স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক দেব প্রসাদ পাল।

সহকারী পুলিশ সুপার, জেলার বিভিন্ন থানার অফিসার ইনচার্জ, তদন্ত কর্মকর্তা, এএসআই, ইউএনডিপি ও বেসরকারী সংস্থা ওয়েভ ফাউন্ডেশনের প্রতিনিধিবৃন্দ অংশ গ্রহণ করেন।

সভায় অংশগ্রহণকারী পুলিশ কর্মকর্তাগণ গ্রাম আদালত আইন যুগোপোযোগী করতে গ্রাম আদালতের বিচারকার্যে আর্থিক এখতিয়ার ৭৫ হাজার টাকা থেকে বৃদ্ধি করা, মুসলিম পারিবারিক আইন অধ্যাদেশ ১৯৬১ এর এখতিয়ারভুক্ত বিরোধগুলো গ্রাম্ আদালতের বিচার্য বিষয় হিসেবে অন্তুর্ভূক্ত করা, মামলা দায়েরের সময় বৃদ্ধি করা, নাবালকের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিরোধ গ্রাম আদালতে বিচার না করা, গ্রাম আদালতের যে কোন সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপীলের বিধান থাকা, বিচারকদের একটি প্যানেল তৈরি করা, গ্রাম আদালতের বিচারকদের জন্য সম্মানীর ব্যবস্থা করা, প্রচারণাবৃদ্ধি করা, বাদী হাজির না হলে জরিমানার বিধান রাখা বিভিন্ন সুপারিশ তুলে ধরেন।

সংবাদ প্রেরক বিটিসি নিউজ এর বাগেরহাট প্রতিনিধি মাসুম হাওলাদার। #

Comments are closed.