ব্রেকিং নিউজ

আজ- শনিবার, ২৭শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১১ই জুলাই, ২০২০ ইং

শিরোনাম

  মাদকদ্রব্যে’র তালিকায় “টাপেন্টাডল”কে যুক্ত করে গেজেট প্রকাশ       রাজশাহীতে ব্যাটারীচালিত অটোরিক্সার সাথে যাত্রীবাহী বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত-২       চিত্রনায়িকা তমা মির্জা পরিবার সহ করোনায় আক্রান্ত       কুমিল্লায় ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও তার ভাইদের হাতে চাচাতো ভাই খুন, আটক-৩       করোনা’র উৎস খুঁজতে চীনের পথে ডব্লিউএইচও’র বিশেষজ্ঞ টিম       টলিউডে করোনা’র হানা : আক্রান্ত রঞ্জিত-কোয়েলসহ পরিবার       র‌্যাব-৫ এর মাদক বিরোধী অভিযানে গাঁজা ও ইয়াবাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার       রাজশাহীর পবায় বাসের ধাক্কায় এক ট্রলিচালক নিহত       আল জাজিরা’র সাংবাদিকদের তলব : মালয়েশিয়া পুলিশ’র       আর মাত্র দুই মাস পরই মহামারি করোনা’র ভ্যাকসিন       প্রেসিডেন্ট হলে প্রথম দিনই ট্রাম্প’র সিদ্ধান্ত বাতিল করবেন বাইডেন       মাছবাহী ট্রাক থেকে ১০ হাজার ইয়াবা ও ৫ হাজার কেজি মাছ জব্দ, আটক-২       উজানের ঢল ও ভারী বর্ষণে ফের তিস্তার পানি বৃদ্ধি       বরিশালের শাশুড়ী কর্তৃক প্রবাসী জামাতার ভবন দখলের অভিযোগ : থানায় ডায়েরী       খুমেক ল্যাবে ৮৪ জনের করোনা পজেটিভ       হবিগঞ্জে নতুন ২৯ জন করোনায় আক্রান্ত    

নাটোরের লালপুরে ইউপি সদস্যকে টাকা দিয়েও প্রতিবন্ধীর ভাগ্যে জোটেনি ভাতা

নাটোর প্রতিনিধি: নাটোরের লালপুরে ৮ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী বৃষ্টি আকতার নিজের নামে প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ডের জন্য ইউপি সদস্যকে টাকা দিয়েও কার্ড হয়নি। বৃষ্টি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট এ নিয়ে অভিযোগ করেছেন।

জানা যায়, লালপুর উপজেলার ৩ নং চংধুপইল ইউনিয়নের পোকন্দা ৭নং ওয়ার্ডের সদস্য কামরুল ইসলাম প্রতিবন্ধী ভাতা কার্ড করে দেয়ার কথা বলে প্রায় ৩ বছর আগে শারিরিক প্রতিবন্ধী বৃষ্টি আকতারের কাছ থেকে ২ হাজার টাকা নেয়। বৃষ্টি আকতারের বাবা কাশেম মুনসী ৮ বছর আগে মারা যাওয়ায় মা মনোয়ারা বেগম গার্মেন্টসে চাকরি করে সংসার পরিচালনা করে।

নানী চাইনা বেগম ও ছোট ভাই মাইনুলকে সাথে নিয়ে গ্রামের বাড়িতে থেকে লেখাপড়া করছে, সে করিমপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর ছাত্র। ইউপি সদস্য কামরুল ইসলাম কার্ড না করে দিয়ে ঘুরাতে থাকে।

এ ব্যাপারে বৃষ্টি আকতার লালপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছে।

বৃষ্টি আক্তার বিটিসি নিউজ এর প্রতিবেদককে বলেন, আমার বাবা অনেক আগে মারা গেছেন। আমরা খুবই গরির এবং আমি একজন প্রতিবন্ধী। কামরুল মেম্বর আমার থেকে ২হাজার টাকা নিয়েছে প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ড করে দেওয়ার জন্য। কিন্তু অনেকদিন তার পেছন পেছন ঘুরেও সে আমাকে ভাতার কার্ড করে দিচ্ছে না। শুধু নানা রকম তালবাহানা করছে।

এ ব্যাপারে ইউপি সদস্য কামরুল ইসলাম টাকা নেয়ার কথা অস্বীকার করে বিটিসি নিউজ এর প্রতিবেদককে বলেন, এটা পূর্বের একটা জের, আমি টাকা নিতে যাব কেন।

এ ব্যাপারে লালপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার উম্মুল বানীন দ্যুতি বিটিসি নিউজ এর প্রতিবেদককে বলেন, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তাকে খোঁজ খবর নেয়ার জন্য বলা হয়েছে।

সংবাদ প্রেরক বিটিসি নিউজ এর নাটোর প্রতিনিধি খান মামুন। #

Comments are closed.