ব্রেকিং নিউজ

আজ- মঙ্গলবার, ৩০শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৪ই জুলাই, ২০২০ ইং

শিরোনাম

  স্প্যানিশ লা লিগা শিরোপার খুবই কাছে রিয়াল : মাত্র দুই পয়েন্ট দূরে রিয়াল       ম্যানইউর পয়েন্ট কেড়ে আশায় জল ঢেলে দিল সাউদাম্পটন       ব্রিজ-সংযোগ সড়ক ভেঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন ২ জেলার কয়েকটি উপজেলার ইউনিয়ন       রাজশাহীর ৬নং ওয়ার্ডে রাস্তা ও ড্রেন নির্মাণ কাজ উদ্বোধন করলেন কাউন্সিলর টুকু       চাঁপাইনবাবগঞ্জে বিদেশী পিস্তলসহ আটক-১       পল্লীবন্ধু এরশাদের সমাধিতে জাপার কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ       পল্লীবন্ধু এরশাদের সমাধিতে জেলা ও মহানগর জাতীয় পার্টির শ্রদ্ধাঞ্জলি       ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নমুনা দিতে এসে সামাজিক দূরত্ব না মানায় বাড়ছে সংক্রমণের ঝুঁকি       রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের অভিযানে আটক ০৫ জন       রাণীশংকৈলে মুজিববর্ষ উপলক্ষে সাবেক এমপি’র বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির       নাটোরে ৫টি হত্যা মামলাসহ ১১ মামলার পলাতক আসামী অস্ত্রসহ গ্রেফতার       ব্রিটেনে মাস্ক পরা উচিৎ কি উচিৎ নয় এটা নিয়ে বিতর্ক       হলিউড অভিনেত্রী কেলি প্রেসটন না ফেরার দেশে গেলেন       কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত বরিশাল ইউপি ভবনের বিভিন্নস্থানে ফাটল !       রাসিক মেয়র লিটনের সাথে টিটিসি‘র নতুন অধ্যক্ষের সৌজন্য সাক্ষাৎ       পোল্যান্ড’র প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে আন্দ্রেস দুদা পুনঃনির্বাচিত    

করোনা টীকা আবিষ্কারের ক্ষেত্রে অক্সফোর্ড এগিয়ে : বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

ছবি: সংগৃহীত

বিটিসি আন্তর্জাতিক ডেস্ক: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. সৌম্য স্বামীনাথন জানিয়েছেন, করোনার টীকা আবিষ্কারের ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশী এগিয়ে আছে অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির বিজ্ঞানীরা।

এক সাক্ষাতকারে বিজ্ঞানী ড. সৌম্য স্বামীনাথন বলেছেন, করোনার প্রতিষেধক তৈরীর ক্ষেত্রে কে কতটা অগ্রসর হয়েছে, সেই পর্যায়ে বিবেচনা করে আমার মনে হয়, সম্ভবত অক্সফোর্ডের বিজ্ঞানীদের তৈরী টিকাই শীর্ষস্থানীয়।

ড. স্বামীনাথন আরও জানান, অক্সফোর্ডের করোনা প্রতিষেধকের পরেই উল্লেখযোগ্যভাবে সাফল্যের সঙ্গে এগোচ্ছে মার্কিন সংস্থা মডর্না’র তৈরী আরএনএ ভ্যাকসিন (Moderna RNA vaccine)। মডার্না আরএনএ ভ্যাকসিনের শেষ পর্বের ট্রায়াল শুরু হচ্ছে জুলাই মাসের মাঝামাঝি থেকে। সুতরাং, খুব বেশী পিছিয়ে নেই মডার্নার তৈরী করোনা প্রতিষেধকও।

অক্সফোর্ডের বিজ্ঞানীদের তৈরী করোনা টীকার উৎপাদনের দায়িত্বে রয়েছে বৃটিশ ফার্মাসিউটিক্যাল জায়ান্ট ‘অ্যাস্ট্রাজেনিকা’ ও বিশ্বের বৃহত্তম টিকা প্রস্তুতকারক সংস্থা ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউট।

এদিকে বিভিন্ন স্থান থেকে বলা হচ্ছে, এ বছরের শেষ বা আগামী বছরের শুরুতে চলে আসতে পারে করোনার টীকা। তিনটি টীকা আনুষ্ঠানিকভাবে প্রয়োগ বা বাজারে আসা এখন শুধু সময়ের ব্যাপার। প্রতিযোগিতার এই দৌড়ে আছে অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি। যুক্তরাষ্ট্রের কয়েকটি প্রতিষ্ঠান। ইসরাইল সহ বিভিন্ন দেশ।

তবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, এই করোনা প্রতিষেধকের দৌঁড়ে সবচেয়ে এগিয়ে আছে অক্সফোর্ডের বিজ্ঞানীদের তৈরী টিকা! বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে দেয়া সাক্ষাৎকারে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. সৌম্য স্বামীনাথন এসব কথা জানিয়েছন। #

Comments are closed.